৩২ বছর পায়ে হেঁটে দুই টাকার শাহী সিঙ্গারা বিক্রি করে আসছেন নান্নু

সিংগারার মধ্যে আলু ঢুকলো কিভাবে!

অথর
জে এন এস নিউজ ডেক্স :   কুষ্টিয়া
প্রকাশিত :৩ জুন ২০২১, ১:১০ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 39 বার
সিংগারার মধ্যে আলু ঢুকলো কিভাবে!

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নান্নু ভাই, জন্ম কুষ্টিয়া জেলার, মিরপুর থানার, পোড়াদহের, স্বরুপদাহ গ্রামের একটি দরিদ্র পরিবারে। তার আট ভাই বোনের মধ্যে তিনি পরিবারের বড় ছেলে। পরিবারের বড় ছেলে হওয়ার দরুন পড়াশোনার গণ্ডি অষ্টম শ্রেণীতেই আটকে গেছে। সে ২০ বছর বয়সে ১৫/১৬ টাকা পুজি নিয়ে শুরু করেন সিঙ্গারার ব্যবসা। প্রথমে ১ টাকায় বিক্রয় হত ১০টি সিঙ্গারা। কালক্রমে মুদ্রার দাম বাড়ার সাথে সাথে সিঙ্গারার দাম এখন ২ টাকা। নান্নু ভাইয়ের শাহী সিঙ্গারার ব্যবসা শুরু করার এক পর্যায়ে ০৬/১০/১৯৮৯ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। তার ঘরে তিনটি কন্যা ও একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। পায়ে হেঁটে হেঁটে সিঙ্গারা বিক্রি করে যা উপার্জন করতেন তা থেকেই পরিবারের ভরণপোষণের পরেও তিনটি মেয়েকে বিবাহ দিয়েছেন, এবং ছেলেকে এখন ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াচ্ছেন। নান্নু ভাই প্রতিদিন সকাল ছয়টা থেকে সিঙ্গারা বানানোর কাজ শুরু করেন। ১০০০ সিঙ্গারা বানানো শেষ করতে তার বেলা ১০টা বাজে। সিঙ্গারা তৈরিতে প্রতিনিয়তই তাকে সার্বিক সাহায্য করেন তার ছেলে ও তার স্ত্রী। সিঙ্গারা প্রস্তুত হয়ে গেলে সিঙ্গারার বাক্স ঘাড়ে নিয়ে বেরিয়ে পড়েন নান্নু ভাই। অটো অথবা সি.এন.জি. যোগে পোড়াদহ থেকে সোজা কুষ্টিয়া। কুষ্টিয়ার মজমপুর থেকে পায়ে হেঁটে সম্পূর্ণ কুষ্টিয়া শহরে ঘুরে বিক্রয় করেন নান্নু ভাইয়ের শাহী (২ টাকার) সিঙ্গারা। ১০০০ পিস সিঙ্গারা বিক্রি করতে মোটামুটি ৩/৪টা বাজে। নান্নু ভাইয়ের কাছে তার ব্যবসা ও পরিবার সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ১৯৮৮ সাল থেকে আমি পায়ে হেঁটে শাহি সিঙ্গারা বিক্রয় করছি। প্রথম ব্যবসা জীবনে ১ টাকায় ১০টি সিঙ্গারা বিক্রি করতাম। আমি ৩২ বছর সিঙ্গারা বিক্রি করি সততার সাথে। এ ব্যবসা করে আমি আমার তিন মেয়েকে বিয়ে দিয়েছি, এখন আমার ছেলেকে ডিপ্লোমা পড়াচ্ছি, আধাপাকা একটি বাড়িও করেছি। আমি চাই আমার ছেলে সৎ ও নিষ্ঠার পরায়নতার সাথে বড় হোক এবং ভালো চাকরি করুক। আমি আমার ছেলেকে ছোট থেকে সৎ ভাবে মানুষ করার চেষ্টা করেছি। আমার ছেলেই আমার ভবিষ্যৎ, আমি চাইনা আমার ছেলে আমার মত এই ব্যবসা করুক। আমি চাই আমার ছেলে একটি ভালো চাকরি করবে এবং আমি আমার জীবনের বাকিটা সময় আমার ছেলের সাথে কাটাতে চাই। যতদিন আমার ছেলে ভালো চাকরি না পায়, আমি ততদিন এইভাবে পায়ে হেঁটে নান্নু ভাইয়ের স্পেশাল (২টাকার) শাহী সিঙ্গারা বিক্রয় করব সততার সাথে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × 2 =