লঙ্কা বধে আজ মাঠে নামছে টাইগাররা

অথর
জে এন এস নিউজ ডেক্স :   কুষ্টিয়া
প্রকাশিত :২৪ অক্টোবর ২০২১, ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 66 বার
লঙ্কা বধে আজ মাঠে নামছে টাইগাররা

স্টেডিয়ামে ঢুকেই চোখ জুড়িয়ে যায়। মাঠে সবুজ রঙে স্টেইপ করে কাটা ঘাস, আর গ্যালারিতে গাঢ় নীলের সমাহার। প্রেসবক্স সাজানো হয়েছে শর্ষে হলুদে। অন্য স্টেডিয়ামের মতো মিডিয়ার জন্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত আলাদা ব্যবস্থা নেই। ক্রীড়া প্রতিবেদকদের বসার জায়গা গ্যালারিতে দর্শকের পাশেই। মাঠের উত্তেজনার সত্যিকারের স্বাদ নেওয়ার দারুণ সুযোগ। এই হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ঐতিহাসিক ভেন্যু শারজা ক্রিকেট গ্রাউন্ড। অনেক রেকর্ডের সাক্ষী এই স্টেডিয়াম। সংযুক্ত আরব আমিরাত নিজেরা ক্রিকেটে ভালো করতে না পারলেও তাদের ভেন্যুতে রচিত হয়েছে অনেক ক্রিকেট-মহাকাব্য। ঐতিহাসিক এই মাঠেই আজ রবিবার বিশ্বকাপে সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ হিসেবে লঙ্কানদের ছোট করে তো দেখার উপায় নেই, আবার দলটি খুব একটা ভয়ংকরও নয়। যদিও কিছুদিন আগেই প্রস্তুতি ম্যাচে তাদের বিরুদ্ধে হারের তিক্ত অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের। তবে প্রস্তুতি ম্যাচ আর মূলপর্ব এক বিষয় নয়। প্রস্তুতি ম্যাচে খেলেননি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান, অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং সেরা বোলার মুস্তাফিজুর রহমান। তাছাড়া বাংলাদেশ দলটাও তখন নিজেদের সেভাবে গুছিয়ে নিতে পারেনি। তবে প্রথম রাউন্ড খেলার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের আত্মবিশ্বাস ব্যাপক বেড়ে গেছে। লঙ্কানদের বিরুদ্ধে সেই আত্মবিশ্বাসীই টাইগারদের বড় অস্ত্র। টি-২০ এর সাবেক চ্যাম্পিয়ন শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের রেকর্ডটা খুব সুখের নয়, আবার অস্বস্তিরও কিছু নেই। দুই দলের ১১ বারের দেখায় ৭ বারই জিতেছে লঙ্কানরা, আর বাংলাদেশের জয় চারবার। তবে সুখের খবর হচ্ছে, সব শেষ দুই দেখাতেই টাইগারদের কাছে হেরে গেছে লঙ্কানরা। তবে এই রেকর্ড নিয়ে আত্মতুষ্টিতে ভোগার উপায় নেই। কারণ, এই ঘটনাও বছর দুয়েক আগের। করোনাভাইরাসের আগে যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। মহামারীর পর সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে দুই দেশের দেখা হয়নি। তাছাড়া টি-২০ এমন এক ফরম্যাট যেখানে পরিসংখ্যান কোনো কাজেই আসে না। তাই এসব নিয়ে ভাবছেও না বাংলাদেশ দল। টিম টাইগার্স কেবলই ক্ষুধার্ত হয়ে আছে জয়ের জন্য। পাশাপাশি দলটিকে নিয়ে ভীষণ সতর্কও মাহমুদুল্লাহ বাহিনী। একটুখানি মনোযোগ এদিক সেদিক হলে পরিস্থিতি কতটা ভয়াবহ হতে পারে সেটা ওমানে প্রথম রাউন্ডের প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে হেরেই বুঝতে পেরেছেন সাকিবরা। তবে এরপর থেকে বাংলাদেশ খুবই সতর্ক এবং আক্রমণাত্মকও। টি-২০ ক্রিকেটে যা দরকার মাহমুদুল্লাহর দলে সেই পারফেক্টনেসটা এসেছে প্রথম ম্যাচে হারার পরই। তাই বাড়তি সতর্কতা নিয়েই মাঠে নামছে টিম বাংলাদেশ। শারজার উইকেটের সঙ্গে দারুণ মিল রয়েছে মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেটের। সে কথা অকপটে সংবাদ সম্মেলনে এসে বলেছেন টাইগার কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। স্পিনাররা এখানে বাড়তি সুবিধা পেতে পারেন। এখানে নাকি বাংলাদেশ অনেকটা স্বাগতিকের মতো স্বস্তি বোধ করবেন। প্রস্তুতি ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে হারলেও এমন পছন্দের মাঠে আজ যদি লঙ্কানদের উড়িয়েও দেয় টাইগাররা তাতেও অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না।
তবে সব কিছুর পরও ফরম্যাটটা অনিশ্চয়তার টি-২০। এখানে সব কিছু ঘটে লটারির মতো। কিন্তু এটা তো বলার অপেক্ষা রাখে না যে যত রোমাঞ্চ, নাটকীয়তা আর রুদ্ধশ্বাস পরিস্থিতির সৃষ্টি হোক না কেন দিন শেষে সেই দলটিই জিতে যায় যে দলটি আত্মবিশ্বাসে বলিয়ান থেকে নিজের সেরা পারফরম্যান্স প্রদর্শন করতে পারে মাঠে। লঙ্কানদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সেই কাজটিই করতে চাচ্ছে। অপরূপ শারজায় লঙ্কা বধ দিয়েই মূলপর্বে মিশন শুরু প্রত্যয় টাইগার ব্রিগেডের।

সংবাদটি শেয়ার করুন

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 + nineteen =