#মানব সেবায় অনন্য ভুমিকায় সাংবাদিক নবীন ও রুহুল

অথর
জে এন এস নিউজ ডেক্স :   কুষ্টিয়া
প্রকাশিত :৫ জুন ২০২১, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 6 বার
#মানব সেবায় অনন্য ভুমিকায় সাংবাদিক নবীন ও রুহুল

গোলাম মস্তফা,মথুরাপুর থেকে ॥ করোনা কালিন দূঃসময়ে মানব সেবায় এক অনন্য নজীর স্থাপন করলেন কুষ্টিয়ার দুই সাংবাদিক। “মানবতার কল্যানে আমরা” এই বাণী কে বুকে ধারন করে,নিজেদের প্রচেষ্টায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার মথুরাপুরে দুঃস্থ ও অসহায় রুগীদের সেবার জন্য ফ্রী মেডিকেল ক্যাম্পের আয়োজন করেন।এ মেডিকেল ক্যাম্পের মাধ্যমে শতাধীক রুগীকে বিনামূল্যে এম,বি,বি,এস ডাক্তারের চিকিৎসা সেবা পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন সাংবাদিকদ্বয়।সরজমিনে দেখা যায়,গতকাল উত্তর মথুরাপুর গ্রামে সকাল ১০টা থেকে বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার কার্যক্রম চলছে,চিকিৎসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ডাঃ ফয়সাল আরেফিন রাজিব, এম,বি,বি,এস(রাজশাহী)।এ সময় খুব ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা যায় কুষ্টিয়া থেকে প্রকাশিত দৈনিক জয়যাত্রা পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও জেএনএস বিডি নিউজ এর প্রকাশক মোঃনবীন এবং চ্যানেল “এস” এর কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক জয়যাত্রা পত্রিকার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক রুহুল আমিন কে।স্থানীয় এলাকাবাসীদের কথা বলে জানা যায়, গত ৩দিন ধরে বিনা মূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার কথা মাইকে প্রচার করা হয়েছে, এখবর শুনে উক্ত এলাকাবাসীর মন আনন্দে মেতে উঠে, কেননা এসব প্রত্যন্ত অঞ্চলের অনেক মানুষ আছেন যারা অর্থের অভাবে শহরে গিয়ে ভালো ডাক্তার দেখাতে পারেন না,শারিরীক অনেক কষ্ট নিয়ে তারা বেচে আছেন। বিনামূল্যে বাড়ির দরজায় একজন এম,বি,বি,এস ডাক্তারের সেবা পাওয়া আসলেই দুরূহ ব্যাপার, সেই কঠিন বিষয়টি আজ অতি সহজেই তাদের দরজায় কড়া নাড়ছে।সুবিধা বঞ্চিত এমনই একজন সত্তরউদ্ধ এক বৃদ্ধা মা এখানে চিকিৎসা নিতে এসেছেন, তার অনুভূতির কথা জানতে চাইলে, তিনি খুশির অশ্রু চোখে ধারণ করে বলেন,অনেক দিন বাবা হাটুতে আর মাজায় ব্যাথা নিয়ে পড়ে আছি,আমার দুই ছেলে, তারা দিনমজুরি করে, করোনায় আয়রোজগার কম,তাই ব্যাথায় কষ্ট করলে ছেলেদের ডাক্তার দেখানোর কথা বলতে পারি না,ডাক্তার দেখাইতে গেলেই হাজার হাজার টাকা খরচ করতে হয়, গরিব মানুষ এতো টাকা পাবো কোথায়।তাই এইখানে বড় ডাক্তার আসার কথা শুনে রোগ দেখাতে আইছি,এখানকার ডাক্তার কেমন দেখলো জানতে চাইলে আবাও বৃদ্ধা মা বলে উঠেন,শুনেছি ফ্রীতে ডাক্তাররা না কি ভালো করে রুগী দেখে না,কিন্তু এই ডাক্তার আমারে মা ডাকছে,খুব ভালো করে আমারে দেখেছে,ওরা হাজার বছর বেচে থাকুক,বৃদ্ধার নিকট থেকে চলে আসতেই পিছন থেকে আবারও সেই বৃদ্ধার ডাক,ও বাবা আমারে কয়ডা টাকা দিবা আমি ওষুধ কিনা খাবো। এখানে চিকিৎসা নিতে আসা আরেক ষাটোর্ধ বৃদ্ধ বলেন,শরির কাপে,বুকে ধরফর করে কোন কাজ করতে পারি না,সংসারে নিজেকে বড় বোঝা মনে হয়,তাই কাউকে চিকিৎসার কথা বলি না,এখানে টাকা ছাড়া বড়ো ডাক্তার রুগী দেখবে শুনে আইছি,এরা খুব ভালো অনেকক্ষণ ধরে আমাকে দেখেছে,এরপর আমার ঔষুধ লিখে দিয়েছে। এরকম অনেক রুগী এখানে এসেছে চিকিৎসা নেওয়ার জন্য। এরকম অনেক রুগী এখানে এসেছে চিকিৎসা সেবা নিতে। এই বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিক নবীন ও রুহুল বলেন, প্রথমে আজকের এই আয়োজন সফল ও সার্থক করার পেছনে যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম মথুরাপুরের কৃতী সন্তান এ্যাডঃ রতন,সময়ের বলিষ্ঠ সন্তান শারমী হোসেন বিদ্যুৎ, তাইজুল ইসলাম সহ যারা প্রকাশ্যে অপ্রকাশ্যে নিরলসভাবে কাজ করেছেন তাদের সকলকে জানায় আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। তারা আরো বলেন,আমরা আমাদের সিমিত সাধ্য দিয়ে শুরু করেছি,এটি চালিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব সমাজের সমাজপতি থেকে শুরু করে আমাদের সবার,তাই এই মহতী উদ্যোগ কে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সমাজের দায়িত্বশীল মানুষদের সহযোগিতা কামনা করেন। এদিকে উক্ত এলাকার এ মহতী কর্মকান্ড নিজ চোখে দেখার জন্য উক্ত মেডিকেল ক্যাম্পে বিকেলে উপস্থিত হন মথুরাপুরের তথা দৌলতপুরের আরেক স্বনামধন্য কৃতি সন্তান পুলিশের এএসপি আহসান হাবিব টুকু,তিনি এসময়ে সকলের খোঁজখবর নেন,এ জনদরদী কর্মকাণ্ড পরিচালনার জন্য সাংবাদিক নবীন ও রুহুল কে ধন্যবাদ জানান তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

19 + 6 =


আরও পড়ুন