দেশে কিশোর গ্যাংয়ের অস্তিত্ব থাকবে না : র‌্যাব ডিজি

অথর
জে এন এস নিউজ ডেক্স :   কুষ্টিয়া
প্রকাশিত :৬ জুন ২০২১, ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ | পঠিত : 52 বার
দেশে কিশোর গ্যাংয়ের অস্তিত্ব থাকবে না : র‌্যাব ডিজি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়নের (ডিজি) মহাপরিচালক চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন বলেছেন, অপরাধ দমনে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর সক্ষমতা রয়েছে। ইতিবাচক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থাসমূহ অপরাধ দমনে কাজ করছে। দেশে কিশোর গ্যাংয়ের অস্তিত্ব থাকবে না। আজ শনিবার (৫ জুন) দুপুরে রাজধানীর তেজগাঁওস্থ জাতীয় চলচিত্র উন্নয়ন করপোরেশনের (এফডিসি) ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির আয়োজনে ‘কিশোর অপরাধ বৃদ্ধিতে সোশ্যাল মিডিয়ার অপব্যবহার’ শীর্ষক ছায়া সংসদ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে র‌্যাব মহাপরিচালক এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, অপরাধের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের র‌্যাব গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসছে। কিশোর গ্যাংয়ের অপরাধ নিয়ন্ত্রণে কোনো রাজনৈতিক চাপ নেই। টিকটকসহ কয়েকটি ডিজিটাল অ্যাপস ব্যবহারের মাধ্যমে অপরাধ প্রবণতা বাড়ছে। এজন্য ক্ষতিকর অ্যাপসগুলো বন্ধ করার বিষয়ে একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটি পর্যালোচনা করছে। র‌্যাব মহাপরিচালক আরও বলেন, কিশোর অপরাধ হঠাৎ করেই বেড়ে গেছে। এরমধ্যে পারিবারিক ও সামাজিক কারণ রয়েছে, টিকটকসহ বিভিন্ন কারণও রয়েছে। আজকের এই অবস্থার দায় সবার। কিশোর অপরাধ নিয়ন্ত্রণে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি অভিভাবক ও শিক্ষকসহ সমাজের বিভিন্ন পেশার মানুষকে সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। বিশেষত পরিবারে সন্তানদের প্রতি বাবা-মায়ের নজরদারি বাড়াতে হবে। সবাই মিলে একসঙ্গে কাজ করলে এই কিশোর অপরাধ কমানো সম্ভব। ভারতে একযোগে ৩ হাজার চিকিৎসকের পদত্যাগ করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত ভারতে একযোগে প্রায় তিন হাজার জুনিয়র চিকিৎসক পদত্যাগ করেছেন। করোনা মহামারিতে বিভিন্ন দাবিতে দেশটির মধ্যপ্রদেশের চিকিৎসকরা ধর্মঘট পালন করছেন। সেই ধর্মঘটকে বৃহস্পতিবার আদালত অবৈধ ঘোষণা করে। এর প্রতিবাদে রাজ্যটির তিন হাজার চিকিৎসক পদত্যাগ করলেন। টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে চিকিৎসক ও তার পরিবারকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া, বৃত্তি বাড়ানোসহ একাধিক দাবিতে গত সোমবার থেকে আন্দোলন করছিলেন মধ্যপ্রদেশের চিকিৎসকরা। বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশের হাইকোর্ট জানায়, চিকিৎসকদের এই ধর্মঘট অবৈধ। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কাজে যোগ দেওয়ার নির্দেশ দেয় আদালত। হাইকোর্টের এমন ঘোষণায় প্রতিবাদ জানান নবীন চিকিৎসকদের সংগঠন-মধ্যপ্রদেশ জুনিয়র ডক্টর অ্যাসোসিয়েশন। এরপর শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজ্যের ছয়টি হাসপাতালের প্রায় তিন হাজার জুনিয়র চিকিৎসক একযোগে পদত্যাগ করেন। আদালতের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সংগঠনটি। সেই সঙ্গে হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে নিজেদের দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অঙ্কিতা ত্রিপাঠী জানিয়েছেন, ‘সরকার এখনও আমাদের দাবি মেনে নেয়নি। কেবল আশ্বাস দিয়েছে মাত্র। তাই এখনই আমরা ধর্মঘট তুলছি না। চলমান করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যের ডাক্তারদের এই পদত্যাগের ঘটনায় উদ্বিগ্ন প্রশাসন

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two + one =


আরও পড়ুন