জেরুজালেমে ফের কনসুলেট খুলতে বাইডেনের পরিকল্পনা, ইসরাইলের আপক্তি

অথর
জে এন এস নিউজ ডেক্স :   কুষ্টিয়া
প্রকাশিত :২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৬:৩৩ অপরাহ্ণ | পঠিত : 85 বার
জেরুজালেমে ফের কনসুলেট খুলতে বাইডেনের পরিকল্পনা, ইসরাইলের আপক্তি

ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে কূটনৈতিক যোগাযোগে দীর্ঘদিন ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসা জেরুজালেমে ফের কনসুলেট খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। তবে এ পরিকল্পনাকে ‘বাজে পরিকল্পনা’ বলে অভিমত দিয়েছে ইসরায়েল।

জো বাইডেনের আগের মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন পুরো জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে তেল আবিব থেকে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস জেরুজালেমে সরিয়ে নিয়েছিল।

বুধবার্ ইসরায়েল বলেছে, এমন কিছু হলে তা নাফতালি বেনেটের নতুন সরকারের ভেতর অস্থিরতা তৈরি করতে পারে।থবর রয়টার্স-এর।

গত কয়েক বছরে যুক্তরাষ্ট্রের যে কয়েকটি পদক্ষেপ ফিলিস্তিনিদের ক্ষিপ্ত করেছিল, তার একটি ছিল মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে সরিয়ে নেওয়া।

ফিলিস্তিনিরা পূর্ব জেরুজালেমকে তাদের ভবিষ্যৎ স্বাধীন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে দেখে। বাইডেন ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে সম্পর্ক পুনঃস্থাপন, দুই রাষ্ট্র সমাধানকে সমর্থন দেওয়া এবং জেরুজালেমে ফের কনসুলেট খোলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন।
জেরুজালেমের মার্কিন কনসুলেটটি ২০১৯ সাল থেকে বন্ধ রয়েছে, ফিলিস্তিন বিষয়ক যাবতীয় সবকিছু দূতাবাসই দেখভাল করে।

“আমাদের মনে হয় এটি বাজে পরিকল্পনা। জেরুজালেম ইসরায়েলের সার্বভৌম রাজধানী এবং কেবল ইসরায়েলেরই। যে কারণে আমরা মনে করি না যে এটা ভালো পরিকল্পনা,” এক সংবাদ সম্মেলনে জেরুজালেমে ফের মার্কিন কনসুলেট খোলার বিষয়ে প্রতিক্রিয়ায় এমনটাই বলেন ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়ায়ির লাপিদ।

“আমরা জানি, এই বিষয়ে বাইডেন প্রশাসনের দৃষ্টিভঙ্গি ভিন্ন। কিন্তু এটা যেহেতু ইসরায়েলে হচ্ছে, সুতরাং আমরা নিশ্চিত যে তারা আমাদের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনবে,” বলেছেন তিনি।

ইসরায়েলের এই আপত্তি ‘অনুমিতই ছিল’ বলে মন্তব্য করেছেন প্যালেস্টাইন লিবারেশন অর্গানাইজেশনের (পিএলও) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ওয়াসেল আবু ইউসেফ।

“তারা স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে এবং যে কোনো ধরনের রাজনৈতিক সমাধান আটকাতে চাইছে,” বলেছেন তিনি।

লাপিদের মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের এক মুখপাত্র বলেন, “পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিনকেন মে’তে যেমনটা ঘোষণা দিয়েছিলেন, যুক্তরাষ্ট্র জেরুজালেমে ফের কনসুলের খোলার প্রক্রিয়া এগিয়ে নিচ্ছে। এর চেয়ে বেশি কিছু এখন আমরা আপনাদের জানাতে পারছি না।”

যুক্তরাষ্ট্র জেরুজালেমে তাদের দূতাবাস সরানো ও শহরটিকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত বদলাচ্ছে না বলেও মুখপাত্র আশ্বস্ত করেছেন।

১৯৬৭ সালের মধ্য প্রাচ্য যুদ্ধে ইসরায়েল পশ্চিম তীর ও গাজার পাশাপাশি জেরুজালেমের পূর্ব অংশও দখল করে নেয়।

তারা অখণ্ড জেরুজালেমকে নিজেদের রাজধানী দাবি করলেও এটি আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নয়।

দীর্ঘদিন ধরে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী থাকা বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে হারিয়ে জুনে দেশটির ক্ষমতায় বসা বেনেট কট্টর জাতীয়তাবাদী। ফিলিস্তিনিরা আলাদা কোনো রাষ্ট্র পাক, তা চান না তিনি।

জেরুজালেমে যুক্তরাষ্ট্রের ফের কনসুলেট খোলার পরিকল্পনা বেনেটের জোট সরকারে অস্থিরতা সৃষ্টি করতে পারে বলে আশঙ্কা লাপিদের।

“আমাদের সরকারের একটি অদ্ভুত ও একইসঙ্গে আকর্ষণীয় কাঠামো রয়েছে। আমরা মনে করছি, (যুক্তরাষ্ট্রের পরিকল্পনা) এই সরকারকে অস্থির করে তুলতে পারে। এমনটা ঘটুক তা যুক্তরাষ্ট্রের প্রশাসন চায় না বলেই আমার মনে হয়,” বলেছেন তিনি।

ফিলিস্তিনিদের মধ্যে বিভক্তিও কূটনৈতিক সম্ভাবনার ভবিষ্যৎকে সন্দেহের চাদরে ঢেকে দিচ্ছে বলে মত এ ইসরায়েলি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর।

“দুই রাষ্ট্র সমাধানে ঘোর আস্থাশীল লোক আমি, কিন্তু এখন আমাদের স্বীকার করতেই হবে যে এই পরিস্থিতিতে এটা সম্ভব নয়,” বলেছেন তিনি।

সূত্র: সংবাদ

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শেয়ার করে  সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

5 × three =